|
|
|
| | | |
 
Our Services
  • Hajj
  • Omrah
  • Air Ticketing
  • Security Service
  • Real Estate
IATA NO. - 42 3 0504 5
 
 
 
 
 

হজ্জ পরিচিতিঃ

ইসলামী শরীয়তের মূল ভিত্তি ৫(পাঁচ) টির মধ্যে হজ্জ অন্যতম একটি ফরয ইবাদত । হজ্জ আরবী শব্দ, অভিধানিক অর্থ কোন মহত্‍  কাজের ইচ্ছা করা, সংকল্প করা।

আর শরিয়তের পরিভাষায় নিদিষ্ট দিনে, নিদিষ্ট স্থানে, শরীয়ত নির্ধারিত কিছু ক্রিয়া কর্ম আল্লাহ তা'আলাকে রাজী ও খুশী করার উদ্দেশ্যে আল্লাহর রাসুলের তরিকায় পালন করার নাম হজ্জ।

হিজরী তৃতীয় সনে মতান্তরে ৬ষ্ট হিজরী সনে হজ্জ ফরজ হয়। সর্ব প্রথমে হয়রত আদম (আঃ) হজ্জ আদায় করেছেন। তিনি চল্লিশ বার হিন্দুস্থান হতে পায়ে হেটে হজ্জ করেছেন।( মু'আল্লিমুল হজ্জ পৃঃ২৫)

হজ্জ তিন প্রকারঃ ১। হজ্জ ইফরাদ ২। হজ্জ কিরান ৩। হজ্জ তামাত্তু।

হজ্জের ফরজ তিনটিঃ ১। ইহরাম বাধা ২। আরাফার ময়দানে অবস্থান করা, ৩। তাওয়াফ যিয়ারত করা। এই তিনটি ফরজের কোন একটি বাদ পড়লে হজ্জ আদায় হবে না।

হজ্জের ওয়াজিব ৬টিঃ ১। মুজদালিফায় অবস্থান করা ২। রমী অর্থাত্‍  কংকর নিপে করা ৩। দমে শোকর বা কুরবানী করা ৪। সায়ী করা ৫। মাথা মুন্ডানো বা চুল খাট করা। ৬। বিদায়ী তাওয়াফ করা । উল্লেখ্য এই ৬টি ওয়াজিবের যদি কোন একটি বাদ পড়ে তবুও হজ্জ আদায় হবে কিন্তু দম ওয়াজিব হবে।

হজ্জের ফজিলত- আল্লাহ পাকের ঘোষনা -" যাদের হজ্জ আদায়ে সক্ষম তাদের প্রতি আল্লাহর উদ্দেশ্যে হজ্জ ফরজ"। আল-কুরআন।
 "আল্লাহর জন্য হজ্জ ও ওমরাহ করা" । আল- কুরআন।


নবীজির ফরমান " যে হজ্জ কবুল তার প্রতিদান বেহেস্ত ছাড়া আর কিছুই নয়। বুখারী ও মুসলিম শরীফ।
নবীজির ফরমান "তোমরা হজ্জ ও ওমরাহ একসঙ্গে আদায় কর, এতে দারিদ্রতা এরূপ দূর হয় যে রূপ লোহা ও সোনা - রূপার ময়লা দূর হয়। বাযযার, তারগীব।
হজ্জ না করার অভিশাপ- নবীজি ফরমান "হজ্জ ফরজ হওয়ার পর যে ব্যক্তি হজ্জ না করে মৃত্যু বরণ করে তার মৃত্যু দীন ইসলামের উপর হবে কিনা আমি জানিনা"- বুখারী শরীফ।

হজ্জে এহরাম অবস্থায় নয়টি কাজ নিষিদ্ধঃ

১। খুসবু ব্যবহার করা, ২। সেলাই করা কাপড় পরিধান করা,( স্ত্রী লোক সেলাই করা কাপর পরতে পারবে ৩। শরীরের চুল বা পশম ছেঁড়া বা পরিস্কার করা। হাত ও পায়ের নখ কাটা, ৪। মাথা ও মুখ ঢাকা। ৫। পশু পাখী শিক্ষার বা শিকারে সাহায্য করা, ৬। উকুন বা পিঁপড়া জাতীয় কিছু মারা, ৭। সর্ব প্রকার যৌনাচার থেকে বিরত থাকা ৮। সাথীদের সাথে ঝগড়া করা, ৯। কোন গুনাহর কাজ করা।

বদলী হজ্জঃ

যার উপর হজ্জ ফরজ, যদি শরয়ী ওজর থাকে বা মৃত্যু বরণ করে তবে সে বদলী হজ্জ করার অছিয়ত করে যাবে। বদলী হজ্জ দ্বারা তার ফরজ হজ্জ আদায় হয়ে যাবে।


মদীনা শরীফ জেয়ারতের ফজিলত-

নবীজী এরশাদ ফরমান "যে ব্যক্তি আমার কবর জেয়ারত করবে তাঁর জন্য আমার শাফায়ত ওয়াজিব হয়ে যাবে"।
নবীজী এরশাদ ফরমান- "যে ব্যক্তি বায়তুলাহ শরীফে হজ্জ করলো আর আমার কবর জেয়ারত করলো না সে আমার প্রতি জুলুম করল ।
রওজা মুবারকের জিয়ারত মুস্তাহাব । বরং সামর্থ্যবানদের উপর ওয়াজিব। দূররে মুখতার।

 
site by dhaka-bd.com
2005 @ Copyright R.H. Mazumder Travels